International Stuttering Awareness Day in Bengali

International Stuttering Awareness Day : তোতলামি

লাইফস্টাইল

আজ অর্থাত্‍ ২২শে অক্টোবর তোতলামির সচেতনতা বাড়াতে এই দিনটি ( International Stuttering Awareness Day) পালন করা হয়।

খুব চেনা এক সমস্যাটি নাম তোতলামি। আপনার অথবা আমাদের আশেপাশের অনেকেই আছেন যারা তোতলা। সেজন্যই আজ অর্থাত্‍ ২২শে অক্টোবর তোতলামির সচেতনতা বাড়াতে এই দিনটি ( International Stuttering Awareness Day) পালন করা হয়। এ দিবসের মাধ্যমে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়, এটা একটা সাময়িক রোগ। কথা বলতে পারাটাই বোধহয় মানুষকে অন্য প্রাণীদের থেকে আলাদা করে তোলে। কিন্তু কিছু মানুষ সেই কথাটা ঠিকভাবে বলতে পারে না। তাদের জিভে আড়ষ্টতা থাকে। ঠিকমতো চিকিত্‍সা করলেই এই রোগ সেরে যায়।

অকারণে আমরা তাদের প্রতি খুব কম সময়ই সহমর্মী হই। অথচ একা কিংবা সবার সামনে সুযোগ পেলেই আমরা তাদের নিয়ে হাসাহাসি করি। কারণ ছাড়াই তাদেরকে অসম্মান করি। তোতলামি সারানোর একমাত্র চিকিৎসা ‘থেরাপি’। সঠিক চিকিৎসা পদ্ধতি মেনে প্রথম থেকেই চিকিৎসা শুরু করলে তোতলামি ১০০ শতাংশ সারানো সম্ভব। আর এই থেরাপির মাধ্যমে একজন অভিজ্ঞ থেরাপিস্ট সম্পূর্ণভাবে তোতলামো সারিয়ে তুলতে পারেন। এই রোগের পিছনে রয়েছে বেশ কিছু কারণ। মস্তিষ্কের বেশ কয়েকটি অংশ থেকে মানুষের কথা বলা নিয়ন্ত্রিত হয়; আর এসকল অংশে আমাদের কখনো সমস্যা হলে কথা বলা সংক্রান্ত বিভিন্ন ধরনের রোগ হতে পারে।

অনূর্ধ্ব ৫ বছরের শিশুর তোতলামি ১০০ শতাংশ সারিয়ে তোলা যায়। পাশাপাশি বড়দের ক্ষেত্রেও তোতলামো ৬০-৮০ শতাংশ কমানো সম্ভব। বড়দের অবশ্যই বাড়িতে প্র্যাকটিস করতে হবে। প্রতিদিন এক-দেড় ঘণ্টা অভ্যাস প্রয়োজন। স্পিচ থেরাপি এমন একটা সিস্টেম যার দ্বারা রেট অব স্পিচ কমানো হয়। এর দ্বারা ব্রিদিং প্যাটার্ন ঠিক করা হয়, মাসুল টেনশন কমানো হয় এবং মনোবল বাড়ানো হয়। পুরো কাজটা মিডভ্যাস পদ্ধতিতে কাজ করে (মিডভ্যাস—মোটিভেশন, আইডেন্টিফিকেশন, ডিসেনসিটাইজেশন, ভেরিয়েশন , অ্যাপরক্সমেশন , স্টেবিলাইজেশন)। আসুন আমরা সচেতন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *