Stammering Problem and Solutions

তোতলামির সমস্যা ও সমাধানের উপায় ।

লাইফস্টাইল

Stammering Problem and Solutions

মস্তিষ্কের বেশ কয়েকটি অংশ থেকে মানুষের কথা বলা নিয়ন্ত্রিত হয়; আর এসকল অংশে আমাদের কখনো সমস্যা হলে কথা বলা সংক্রান্ত বিভিন্ন ধরনের রোগ হতে পারে।

তোতলামির প্রতিবন্ধকতা এক ধরনের শারীরিক ব্যাধি; যার কারণে কিছু মানুষ একই শব্দকে বার বার বলে।পরিবেশ ও জিনগত কারণে মূলত তোতলামির সমস্যা হয়ে থাকে। স্বরযন্ত্র বা অন্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গের অসুখ কিংবা তার গঠনগত কোনো সমস্যা দায়ী নয়।শিশুরা যে বয়সে কথা শেখে, সেই সময়ে কথা বলতে খানিকটা অসুবিধা হতেই পারে।

তোতলামি নিউরোজেনিক কারণেও হতে পারে। মস্তিষ্কের বেশ কয়েকটি অংশ থেকে মানুষের কথা বলা নিয়ন্ত্রিত হয়; আর এসকল অংশে আমাদের কখনো সমস্যা হলে কথা বলা সংক্রান্ত বিভিন্ন ধরনের রোগ হতে পারে।

শিশু যখন তোতলায় তখন তাকে তোতলানোর বিষয়টি ধরিয়ে দেওয়া যাবে না। তোতলামোর সময় তাকে থামতে বলা যাবে না কিংবা একবার উচ্চারণ করা কথার পুনরাবৃত্তি করার জন্য চাপ দেওয়া যাবে না। তোতলামি নিয়ে লজ্জার কিছু নেই। স্বাভাবিকভাবে যখন ১০০-১২০টি শব্দ উচ্চারণে ৫ শতাংশ বা তার বেশি শব্দ আটকে যায়, তখন তাকে স্ট্যামারিং বলা হয়।

পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার প্রায় ১ শতাংশ মানুষ এই সমস্যায় ভোগেন।শিশুকে ছোটবেলায় যদি কথা বলার জন্য বেশি চাপ সৃষ্টি করা হয়, সেক্ষেত্রে শিশুটির মধ্যে তোতলামো ভাব আসতে পারে।

তোতলামি সারানোর একমাত্র চিকিৎসা “থেরাপি”। সঠিক সময়ে থেরাপির মাধ্যমে একজন অভিজ্ঞ থেরাপিস্ট সম্পূর্ণভাবে তোতলামো সারিয়ে তুলতে পারেন। থেরাপির তিনটি ভাগ রয়েছে— ইন্ডিভিজুয়াল থেরাপি, গ্রুপ থেরাপি এবং কাউন্সেলিং থেরাপি। তোতলানোর ধরন আগে চিহ্নিত করুন। অর্থাৎ আপনি কোনো নির্দিষ্ট অক্ষর বা শব্দাংশ পুনরাবৃত্তি করছেন কিনা, বা টেনে বলছেন কিনা অথবা কোন কোন অবস্থাতে এ সমস্যার অবনতি হচ্ছে তা চিহ্নিত করুন।

টিআরপির সেটাকে বলা বন্ধ করুন| দুশ্চিন্তা বা নার্ভাসনেস তোতলামির সমস্যার একটি বড় কারণ। যথাযথ উদ্বেগমুক্ত হওয়ার মাধ্যমে সমস্যাটি সহজেই দূর করা যায়। কথা বলতে গিয়ে তোতলানোর সমস্যা দূর করার জন্য মনকে রিল্যাক্স রাখতে হয়। সবশেষে ভালো চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

1 thought on “তোতলামির সমস্যা ও সমাধানের উপায় ।

  1. I don’t even know how I stopped up here, however I assumed this post was once great.
    I don’t realize who you are but certainly you are going to a
    famous blogger in the event you are not already.

    Cheers!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *