মহম্মদ শামীর করা আবেদনের প্রেক্ষিতে এই স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেওয়া হয়। রায়ের ফলে সাময়িক স্বস্তি পেলেন মহম্মদ সামি।

মহম্মদ সামি -র গ্রেপ্তারি আপাতত স্থগিত

খেলা

মহম্মদ শামীর করা আবেদনের প্রেক্ষিতে এই স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেওয়া হয়। রায়ের ফলে সাময়িক স্বস্তি পেলেন মহম্মদ সামি।

ভারতীয় পেসার মহম্মদ সামির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার উপর স্থগিতাদেশ দিল আদালত। গতকাল রায়ের বিরুদ্ধে মহম্মদ শামীর করা আবেদনের প্রেক্ষিতে এই স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেওয়া হয়। রায়ের ফলে সাময়িক স্বস্তি পেলেন মহম্মদ সামি। স্ত্রী হাসিন জাহানের মামলায় ১৫ দিনের মধ্যে হাজির হওয়া থেকে কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামি। সোমবার ভারতের আলিপুর আদালত তার গ্রেফতার আদেশ সাময়িক স্থগিত করেছে। আপাতত ২রা নভেম্বর পর্যন্ত সামিকে হাজিরা দিতে হচ্ছে না। এর ফলে সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজে খেলতে অসুবিধা নেই তার। ২রা অক্টোবর থেকে ২৩শে অক্টোবর পর্যন্ত চলবে তিন টেস্টের সিরিজ।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৮ ধারায় (‌বধূ নির্যাতন)‌ সামির বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন তাঁর স্ত্রী হাসিন জাহান। তদন্তের পর পুলিশ চার্জশিটও জমা দিয়েছিল সামির বিরুদ্ধে। তারপরেও সামি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে ঘুরে খেলছেন, এই অভিযোগ তুলে গত ২৯ আগস্ট আদালতের কাছে দ্রুত মামলাটি নিষ্পত্তির আবেদন জানান হাসিনের আইনজীবী অনির্বাণ গুহঠাকুরতা। গত ২রা সেপ্টেম্বর, আদালতে মামলাটি উঠতে সামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন বিচারপতি। নির্দেশ অনুযায়ী, দেশে ফেরার ১৫ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির না হলে সামির বিরুদ্ধে পরোয়ানা কার্যকর করা হত।

গত বছরের মার্চ থেকে সামির সঙ্গে আইনি বিবাদ চলছে তার স্ত্রী হাসিন জাহানের ( Hasin Jahan )। শামির বিরুদ্ধে হাসিনের অভিযোগ মারধর ও যৌন হয়রানির। যা প্রমাণিত হলে তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে শামির। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা যথাযথ নয় বলে পরোয়ানার ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে সোমবার সামির দুই আইনজীবী সেলিম রহমান ও নাজমুল আলম সরকার আদালতে হাজির হন। পুরো বিষয়টি শুনে বিচারপতি তাঁদের আবেদন মেনে নেন। পরে নাজমুল বলেন, ‘‌পুলিশ যাঁর বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেয়, তাঁকে আগে সমন পাঠাতে হয়, তারপর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এক্ষেত্রে সেটা হয়নি। তাই আমরা স্থগিতাদেশের আবেদন করেছিলাম। বিচারপতি রাই চট্টোপাধ্যায় আবেদন মেনে নিয়েছেন।’‌এখন দেখার মামলার জট কাটিয়ে তিনি ক্রিকেট খেলে যেতে পারেন কিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *