kkr2019

এবার আইপিএল জয়ের স্বপ্ন দেখছে কলকাতা নাইট রাইডার্স

খেলা

চার-ছয়ের ফুলঝুরি আর করবো-লড়বো-জিতবো নিয়েই কলকাতা নাইট-রাইডার্স

২৯শে মার্চ ২০১৯, আইপিএল ক্রিকেট যুদ্ধ শুরু হচ্ছে| শেষ হবে ১৯শে মে ২০১৯| এবার ৮টি পেশাদারি দল সীমিত ওভারের এই ক্রিকেটের আসরে অংশগ্রহণ করবে| এবারের ‘করবো লড়বো জিতবো”রের শক্তি অবশ্যই বোলিং।

স্পিনের সাথে পেস বোলারদের উপর নির্ভর করে দল গড়েছে কেকেআর। যদিও ব্যাটিং লাইনআপকে একেবারে অবহেলা করা যাবে না। বেশ কয়েক জন খুব ভালো মানের ব্যাটসম্যান আছেন দলে। একবার দেখে নিই, নাইটদের ব্যাটিং শক্তির দিকে।

রবীন উথাপ্পা: ভারতীয় দল ও প্রথম শ্রেণিতে সেভাবে দেখা যাচ্ছে না। এক সময় জাতীয় দলের ভরসার নিয়মিত সদস্য ছিলেন। কিন্তু এখনও নাইট সংসারের তিনি বহু ম্যাচ জেতানো অন্যতম সদস্য। ওপেনার হিসেবেই তাঁকে হয়তো বাছবেন অধিনায়ক।

সুনীল নারিন: ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই ভালো স্পিনারটি কেকেআর-এর বড় সম্পদ। বলের পাশাপাশি ব্যাট করতে পারে নারিন । গত বার ১৬টি ম্যাচে ৩৫৭ রান করেছিলেন, নিয়েছিলেন ১৭টি উইকেট।

ক্রিস লিন: অজি ক্রিকেটারটি অবশ্যই কেকেআর-এর বড় ভরসা। দ্রুত রান করার ক্ষেত্রে লিনের বিকল্প পাওয়া ভার । সাথে আছে তাঁর অসাধারণ ফিল্ডিং।

নিতীশ রাণা: দু’বারই আইপিএল-এ নজর কেড়েছেন। ২০১৮ তে ১৫ ম্যাচে ৩০৪ রান করেছিলেন। এ বছরও রাণা ভরসায় থাকবে।

শুভমান গিল: তরুণ ভারতীয় ক্রিকেটার। গত বার নাইটদের হয়ে ১৩টি ম্যাচে ২০৩ রান করেছিলেন। সম্প্রতি ভারতীয় দলেও সুযোগ পেয়েছেন।

দীনেশ কার্তিক: শাহরুখ দলের অধিনায়ক কার্তিক এই মুহূর্তে টি২০তে অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। গত বার ১৬টি ম্যাচে করেছিলেন ৪৯৮ রান।

আন্দ্রে রাসেল: টি২০-র অন্যতম ভয়ঙ্কর ক্রিকেটার। এই অলরাউন্ডার যে কোনও মুহূর্তে যেকোনো ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন। গত আইপিএল-এ ১৬ ম্যাচে ৩১৬ রান করেছিলেন।

ইশাঙ্ক জাগ্গি: এখনও পর্যন্ত মাত্র সাতটি আইপিএম ম্যাচ খেলেছেন। গড় ১৫-এর সামান্য বেশি| ক্যামেরন ডেলপোর্ট: এখনও পর্যন্ত আইপিএল খেলেননি দক্ষিণ আফ্রিকার এই বাঁহাতি। দেশের মাঠে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নজরকাড়া সাফল্যের জন্যই প্রথম আইপিএলে সুযোগ পেলেন।

টম কুরান: অলরাউন্ডার হিসেবে আইপিএল-এ পাঁচটি ম্যাচ খেলেছিলেন। মূলত বোলার হলেও ব্যাটিং হাতটা ভাল।

অপূর্ভ ওয়াংখেড়ে: আইপিএলে অন্যতম তরুণ ক্রিকেটার কুড়ি লাখে দলে নেওয়া হয়েছে।

নিখিল নায়েক: এখনও তেমন ভাবে আইপিএলে সুযোগ পাননি। মাত্র দু’টি ম্যাচ খেলেছেন আইপিএলে।

জো ডেনলি: টি ২০তে বেশ চমক সৃষ্টি করেছেন। বল-ব্যাট উভয় দিক থেকে দলের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারেন।

রিঙ্কু সিংহ: দলের এক তরুণ সদস্য। মাত্র চারটি আইপিএল ম্যাচ খেলেছেন। ভরসা রাখা যায় তার ব্যাটে|

এবার অপেক্ষা চ্যাম্পিয়ান হওয়ার দৌড়ে নামার| চার-ছয়ের ফুলঝুরি আর করবো-লড়বো-জিতবো নিয়েই কলকাতা নাইট-রাইডার্স| থাকছে তো?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *