Bhutan Entry Fee of Rs 1200 for Indian Tourists

Bhutan Entry Fee: ভুটানে মাথাপিছু প্রতিদিন প্রবেশ কর

ভ্রমণ

ভিসা লাগে না৷ পাসপোর্ট থাকলেই হইহই করে ভুটান সফর ৷ পাসপোর্ট না-থাকলেও নো চিন্তা, পারমিট থাকলেই হল৷ কিন্তু সেই সুখের দিন এ বার ইতি (Bhutan Entry Fee)।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পীঠস্থান ভুটান ভ্রমণ বেশ মহার্ঘ হয়ে উঠছে। সাধারণ মানুষের কাছে হাতের নাগালে সুইত্‍জারল্যান্ড মানেই ভুটান৷ ভুটানের মন্ত্রমুগ্ধকর সৌন্দর্য, অত্যাশ্চর্য প্রাকৃতিক দৃশ্য বরাবর আকর্ষণ করেছে পর্যটকদের। ভারতীয় পর্যটকদের কাছে খুব প্রিয় একটি গন্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ভুটান। বিশেষ করে উত্তরবঙ্গ লাগোয়া হওয়ায় বাংলার পর্যটকদের কাছে ভুটান বড় আপন ৷ ভিসা লাগে না৷ পাসপোর্ট থাকলেই হইহই করে ভুটান সফর ৷ পাসপোর্ট না-থাকলেও নো চিন্তা, পারমিট থাকলেই হল৷ কিন্তু সেই সুখের দিন এ বার ইতি (Bhutan Entry Fee)।

Bhutan Border
Bhutan Border

ভুটান সরকার সম্প্রতি পর্যটকদের জন্য পুরনো স্কিম তুলে দিয়েছে৷ ভারত, বাংলাদেশ ও মলদ্বীপের পর্যচকদের ভুটান যেতে গেলে মোটা টাকা এন্ট্রি ফি দিতে হবে সে দেশের সরকারকে৷ কত টাকা লাগবে? ভুটান সরকার জানিয়েছে, ভুটানে প্রবেশ করতে গেলে ১২০০ টাকা করে দিতে হবে প্রতিদিন মাথাপিছু৷ অর্থাত্‍, আপনি দু জন যদি ৭ দিনের জন্য ভুটান বেড়াতে যান, তা হলে আপনার এন্ট্রি ফি হিসেবে খরচ পড়বে, ২৪০০x৭, অর্থাত্‍ ১৬ হাজার ৮০০ টাকা৷ ৬ থেকে ১২ বছরের শিশুদের জন্য লাগবে ৬০০ টাকা। অন্য দেশের পর্যটকদের ভুটান সফরের জন্য আরও বেশি অর্থ গুনতে হবে। এই টাকাটা ভুটানে প্রবেশ করার জন্য দিতে হবে ভুটান সরকারকে৷

Beauty of Bhutan
Beauty of Bhutan

ভুটানে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতে ভুটান সরকার সাসটেনেবেল ডেভলপমেন্ট ফি (এসডিএফ) নামের এই নতুন ব্যবস্থা চালু করল। আগে দু’টি বৈধ তথ্য থাকলেই ভারতীয় পর্যটকদের কাছে ভুটান সফরে কোনও বাধা ছিল না। কোনওরকম প্রবেশ মূল্য লাগত না। পাসপোর্ট বা ভোটার আইডি কার্ড থাকলেও ভুটান সফর করা যেত। ভারতীয় পর্যটকদের কোনও ভিসা লাগত না। সামনের জুলাই মাস থেকে এই ধারা বদলে যাচ্ছে। ভারতের পর্যটকদের জন্য এই সাসটেনেবল ডেভেলপমেন্ট ফি বেশ কম অন্যান্য দেশের তুলনায়৷ অন্যান্য দেশের পর্যটকদের প্রতিদিন ১৭ হাজার ৮১১ টাকা করে দিতে হবে৷

Bhutan Tour
Bhutan Tour

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *