Jaldapara Reserve Fire Erupts Due to Local People

Jaldapara Reserve Fire: পুড়লো জলদাপাড়া অরণ্য

ভ্রমণ

আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল জলদাপাড়া অভয়ারণ্যের (Jaldapara Reserve Fire) তোর্ষা নদীর চড়ের বিস্তীর্ণ এলাকা। এখানে ঘাসবন নির্ভর প্রাণিকূল খুব বিপদে …

এখনো বেশ টাটকা আমাজন ও অস্ট্রেলিয়ার স্মৃতি। সেই ভয়াবহ ছবি এবার নেমে এলো আমাদের জলদাপাড়া অরণ্যে। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল জলদাপাড়া অভয়ারণ্যের (Jaldapara Reserve Fire) তোর্ষা নদীর চড়ের বিস্তীর্ণ এলাকা। এখানে ঘাসবন নির্ভর প্রাণিকূল খুব বিপদে পড়েছে। সেই তালিকায় আছে হরিণ, বিপন্ন প্রজাতির খরগোশ, ময়ূর। বন দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই আগুনে অজস্র কীটপতঙ্গ, জীবজন্তুর ডিম নষ্ট হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। স্থানীয় মানুষ, দমকল ও বনকর্মীদের চেষ্টায় রাত প্রায় বারোটা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

Jaldapara Reserve Fire Erupts Due to Local People
Jaldapara Reserve Fire Erupts Due to Local People

তোর্ষা নদীর চরে এই তৃণভূমি আসলে গন্ডারের বিচরণক্ষেত্র। কিন্তু শীতের শেষে ঘাসের জঙ্গল পুরোপুরি শুকিয়ে যাওয়ায় গন্ডাররা তখন নদীর চর থেকে জঙ্গলের দিকে সরে আসে। আর তা না হলে এমন বিধ্বংসী আগুনে অনেক গন্ডারের মৃত্যুর আশঙ্কা ছিল। তবে জঙ্গলের বেশ কিছু ছোট জন্তুর মৃত্যু হয়েছে। জলদাপাড়া বনবিভাগের ডিএফও কুমার বিমল বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তের পর আমরা নিশ্চিত যে, প্রাকৃতিক উপায়ে আগুন লাগেনি। কিছু মানুষের ইচ্ছাকৃত ভুলেই বনাঞ্চলে ওই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আমরা তাদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে এখন আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে।’

বারুইপুরে সংশোধনাগার কর্মীদের আটক করলো বন্দিরা নিজেই – আরও জানতে ক্লিক করুন

জানা গিয়েছে, আগুন লাগে জলদাপাড়ার মালংগি ১ ও ৩ নম্বর বিটের কম্পার্টমেন্টের মাঝখানে। প্রাথমিক তদন্ত অনুমান, জ্বলন্ত বিড়ির টুকরো থেকেই এই বিপত্তি। নদীতে মাছ ধরতে এসে কেউ জ্বলন্ত বিড়ির টুকরো ছুড়ে ফেলেছিলেন। তার থেকেই আগুন লাগে। ঘাস শুকনো থাকাতেই এমন বিপত্তি। প্রায় ৭০ থেকে ৭৫ হেক্টর জমির জঙ্গল ভস্মীভূত হয়েছে। হাওয়ার দাপটের সঙ্গে লড়াই করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে রীতিমতো হিমশিম খান দমকলকর্মীরা।

বউবাজার মেট্রোর কাজে আবার ফাটল কয়েকটি বাড়িতে – আরও জানতে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *