Sabuj Deep West Bengal Tour Plan

Sabuj Deep: সবুজে মোড়া সবুজ দ্বীপ ভ্রমণ

ভ্রমণ

হুগলি জেলা পরিষদ ও মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে কলকাতা থেকে ৭৫ কিলোমিটার দূরে ১৯৯৩ সালে তৈরী হয়েছে স্বপ্নময় সবুজ দ্বীপ (Sabuj Deep)।

ভ্রমনপিপাসুদের জন্য নতুন করে সেজে উঠছে “সবুজ দ্বীপ”। বহু অর্থে সাজিয়ে তলা হয়েছে সবুজ দ্বীপ। হুগলি জেলা পরিষদ ও মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে কলকাতা থেকে ৭৫ কিলোমিটার দূরে ১৯৯৩ সালে তৈরী হয়েছে স্বপ্নময় সবুজ দ্বীপ।

Sabuj Dwip Destination
Sabuj Dwip Destination

বেহুলা ও হুগলি নদীর সংযোগস্থলে চর জেগে তৈরী হয়েছে ২ কিলোমিটার দীর্ঘ, ৪০ ফুট প্রশস্ত, ১৮০ বিঘা জুড়ে ঝাউ, আকাশমনি, পাম, ইউক্যালিপটাস, অর্জুন, শাল, সেগুন, মেহগনি, সুপারি, নারকেল ও দেবদারুর সবুজে মাতোয়ারা সবুজ দ্বীপ।

Sabuj Deep Forest
Sabuj Deep Forest

একপলকে সবাইকে অবাক করে দেবে এর সজীবতা| দুপাশে নারকেল গাছের ভিড়। চিলড্রেনস পার্ক, ভিউ টাওয়ার আছে। সবুজ দ্বীপের রাজা ও তৃপ্তি হোটেল অ্যান্ড রেস্তোরাঁতে ভাত থেকে চা সবই পাবেন। গুপ্তিপাড়ার দক্ষিনে বর্ধিষ্ণু জনপদ সোমড়ায় ১৭৫৫ সালের নবরত্ন মন্দিরটি বিধ্বস্ত আর জঙ্গলাকীর্ণ হলেও দেবী রয়েছেন সিংহবাহিনী জগদ্ধাত্রী। আছে ১৭৬৫ সালের পিরামিডধর্মী পঞ্চরত্ন মন্দিরে শ্রী শ্রী মহাবিদ্যা, গড় বেষ্টিত সুখাড়িয়ার প্রাসাদোপম বিশাল প্রাসাদ।

Anandomoyee Temple
Anandomoyee Temple

আর ১৮১০ সালে তৈরি নাগারা শৈলীর টেরাকোটায় সমৃদ্ধ অনিন্দ্যসুন্দর ২৫ চুড়োর বারোচালার আনন্দময়ী মন্দিরটি মন ভরিয়ে দেবে।

Sabuj Deep During Summer
Sabuj Deep During Summer

সবুজ দ্বীপে ২৬ টি অত্যাধুনিক কটেজ তৈরী করা হচ্ছে। এই কটেজগুলি ভাড়া নিতে গেলে বেশি টাকা খরচ করতে হবে না পর্যটকদের। সাধারণের আয়ত্তের রাখা হচ্ছে মধ্যেই সবুজ দ্বীপের কটেজগুলিকে। ১০ বেডের ডর্মিটারি হোটেল তৈরী করা হচ্ছে। পিকনিক স্পটও তৈরী করা হচ্ছে। কৃত্রিম ‘গলফ টার্ফ’ তৈরী করার পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে সবুজ দ্বীপে।

Cottages of Sabuj Deep
Cottages of Sabuj Deep

পাশেই আছে দ্বাদশ শিবমন্দির, হরসু্ন্দরী ও নিস্তারিণী কালীর মন্দির। রিক্সা করে শ্রীপুর জমিদারবাড়িতে দারুতে তৈরী কারুকার্যময় আটচালার দুর্গামন্ডপ দেখুন। ১৭৪৬ সালে তৈরি একচুড়োর রাধাগোবিন্দজিউর মন্দির, সামনে ১৯১৭ এর দোলমঞ্চ, বাংলার তক্ষন শিল্পের নিদর্শন ১৭০৮ সালের তৈরি দোচালা চন্ডীমন্ডপ, আটচালা শিবমন্দির, গড়ের বাইরে রেখ শৈলীর জোড়া শিবের পঞ্চরত্ন মন্দির খুব ভালো লাগবে। শ্রীপুর বাজারে সুন্দর নৌশিল্পের কারখানাও দেখতে পারেন।

Park of Sabuj Deep
Park of Sabuj Deep

কীভাবে যাবেন?

হাওড়া থেকে ৪০ কিলোমিটার দুরের ব্যান্ডেল হয়ে ব্যাক লুপ লাইনে ত্রিবেণী, বলাগড়, সোমড়া বাজার ৮ কিমি অর্থাৎ ত্রিমুখী ৩ রেল স্টেশন থেকে আসতে পারেন সবুজ দ্বীপ। সরাসরি ট্রেনও যাচ্ছে ৮টা ৬ এ শিয়ালদহ ছেড়ে শিয়ালদহ-কাটোয়া লোকাল ব্যান্ডেল ৯টা ২৬, ত্রিবেণী ৯টা ৩৯, বলাগড় ৯টা ৫৬, সোমড়া বাজার ৯টা ৫৬ এ পৌঁছে গুপ্তিপাড়া, অম্বিকা কালনা, নবদ্বীপ ধাম হয়ে কাটোয়া যাচ্ছে। সোমড়া বাজার রেল স্টেশন থেকে রিকশা বা পায়ে ১০ মিনিটের পথে সুখাড়িয়া গ্রাম বা সবুজ দ্বীপ ঘাট। এরপর নৌকা পেরোনো। বলাগড় থেকেও পায়ে বা রিকশায় সোমড়া বাজার পৌঁছে একইভাবে চলা যায় সবুজদ্বীপে। চুঁচুড়া থেকে চুঁচুড়া-কালনা ৮ নম্বর বাসে কোড়লার মোড় নেমে ১২ মিনিটে যাওয়া যায় সুখাড়িয়া ফেরি ঘাটে।

ফেরার সময় কাটোয়া-হাওড়া লোকালে সোমড়া বাজার বিকেল ৪টে ৪৩, বলাগড় ৪টে ৪৬, ত্রিবেণী ৫টা ৫, ব্যান্ডেল ৫টা ৪১ এ পৌঁছে ৬টা ৪৮ ও হাওড়ায় ফেরা। এছাড়া শিয়ালদহ যাওয়ার জন্য অনেক ট্রেন পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *