10 Died in Kabul Attack Near US Embassy

Kabul Attack: মার্কিন দূতবাসের সামনে বোমা হামলা

আন্তর্জাতিক

এই ঘটনায় (Kabul Attack) অন্তত ১০ জন নিহত ও ৪০ জন আহত হয়েছেন মার্কিন দূতাবাস ও ন্যাটো কার্যালয়ের সামনের তল্লাশি চৌকিতে ওই হামলা চালানো হয়।

কাবুলের সার্বিক পরিস্থিতি খুবই সংকটের। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে মার্কিন দূতাবাসের সামনে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। আর এই ঘটনায় (Kabul Attack) অন্তত ১০ জন নিহত ও ৪০ জন আহত হয়েছেন মার্কিন দূতাবাস ও ন্যাটো কার্যালয়ের সামনের তল্লাশি চৌকিতে ওই হামলা চালানো হয়। আসলে কাবুলের সবচেয়ে সুরক্ষিত এলাকাটি ‘গ্রিন জোন’ নামে পরিচিত। আর সেখানে আফগানিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ভবন,মার্কিন দূতবাস ও ন্যাটো মিশনের কার্যালয় অবস্থিত। আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানায়, হতাহতদের মধ্যে দুজন ন্যাটো পরিচালিত আফগান মিশনের বেসামরিক সদস্য রয়েছেন যাদের একজন যুক্তরাষ্ট্রের ও অন্যজন রোমানিয়ার নাগরিক। জানা যাচ্ছে, ন্যাটো কার্যালয় ও মার্কিন দূতবাসের সামনের রাস্তায় ওই গাড়ি বোমা হামলা করা হয়।

ন্যাটো কার্যালয় ও মার্কিন দূতবাসের সামনের রাস্তায় ওই গাড়ি বোমা হামলা করা হয়। এই বেপরোয়া হামলাতে আশপাশের মুদি দোকান ও ভবনের অংশবিশেষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হামলাকারী সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান বলছে, তারা বিদেশি বাহিনীর একটি গাড়িবহর লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছিল। যদিও এই হতাহতদের মধ্যে দুজনকে ন্যাটো পরিচালিত আফগান মিশনের দুজন বেসামরিক সদস্যও আছে। যাদের একজন রোমানিয়ার অপরজন যুক্তরাষ্ট্রের। কয়েকদি আগে, কাবুলে বিদেশি বিভিন্ন সংস্থার কার্যালয় ও গেস্ট হাউস ভবনে ট্রাকে করে বোমা হামলা চালায় তালেবান। হামলায় ১৬ জন নিহত ও শতাধিক মানুষ আহত হয়। তার কিছুক্ষণ আগে আফগান বিষয়ক মার্কিন প্রতিনিধি জানান, তালেবানের সঙ্গে শান্তি চুক্তিতে উপনীত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।সেদিন জালমেয় খলিলজাদ জানান, যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবান নীতিগতভাবে একটি চুক্তিতে উপনীত হয়েছে।

চুক্তি অনুযায়ী আগামী বিশ সপ্তাহের মধ্যে দেশটি থেকে ৫ হাজার ৪০০ মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে। বাকি শুধু প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চূড়ান্ত অনুমোদন। আফগানিস্তানের তালেবান গোষ্ঠী আজকের হামলার দায় স্বীকার করেছে। তালেবান মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ দাবি করেছেন, তাদের হামলায় অন্তত ১২ জন বিদেশি সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। কাবুল পুলিশ প্রধানের মুখপাত্র ফিরদৌস ফারামার্জ জানান, নাইন্থ পুলিশ ডিস্টিক্ট্রের সদর শহরে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে৷ গোটা এলাকা ভিআইপি জোনে কড়া পুলিশি প্রহরা ছিল৷ তার মধ্যে এই বিস্ফোরণ কীভাবে ঘটল তা খতিয়ে দেখছে কাবুল পুলিশ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *