Armed Myanmar Rebel Attack Kills 15

Myanmar Rebel Attack: হামলায় নিহত ১৫জন

আন্তর্জাতিক

হামলার দায় স্বীকার করেছে ওই অঞ্চলে তৎপর বিদ্রোহী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর জোট নর্দান অ্যালায়েন্স (Myanmar Rebel Attack) ।

প্রতিবেশী মায়ানমারে, স্থানীয় বিদ্রোহীরা (Myanmar Rebel Attack) দেশটির সামরিক বাহিনীর একটি কলেজসহ পাঁচটি স্থানে হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশটির পিয়ন-ও-লিয়ন শহরে সামরিক বাহিনীর টেকনোলজিক্যাল অ্যাকাডেমি, যেখানে সামরিক বাহিনীর ইঞ্জিনিয়াররা প্রশিক্ষণ নেন এবং আরও চারটি ভিন্ন জায়গায় হামলা করা হয়। হামলায় নিহতদের বেশিরভাগ সামরিক বাহিনীর সদস্য।

তবে হামলার দায় স্বীকার করেছে ওই অঞ্চলে তৎপর বিদ্রোহী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর জোট নর্দান অ্যালায়েন্স। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র টুন টুন এনআই জানান, নাওং চ শহরে পাশে গোকটেক ভায়াডাক্ট রেল সেতু এলাকায় বিদ্রোহীদের সঙ্গে সেনাদের লড়াই চলছিল। আরও একটি সেতু পার হয়ে বিদ্রোহীরা পুলিশের একটি কার্যালয় আগুন লাগায়। এই ঘটনায় সাত সেনা, পুলিশ সদস্য ও বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন।

হামলার দায় স্বীকার করে শান রাজ্যের পালাউংয়ের সশস্ত্র গোষ্ঠী তাং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির মং এইকে কিয়াও বলেন, টিএনএলএ, আরাকান আর্মি এবং মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স আর্মি কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে কোনো চুক্তি সই করেনি। এ অঞ্চলে সামরিক চাপ কমানোর উদ্দেশে এই হামলা চালানো হয়েছে। কয়েক দশক ধরেই সংখ্যালঘু নৃগোষ্ঠীগুলোর অধিক স্বায়ত্বশাসনের লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি গোষ্ঠী এখানে লড়াই করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *