China announced revised height of Mount Everest

এভারেস্টের ৩ ফুট উচ্চতা বাড়ল – চীন ও নেপালের যৌথ সমীক্ষা

আন্তর্জাতিক ভ্রমণ

দুই দেশের পক্ষ থেকে মাউন্ট এভারেস্টের নতুন উচ্চতা (Height of Mount Everest) প্রকাশ করা হল। চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ও নেপালের …

নিজস্ব সংবাদদাতা: এভারেস্টের গর্বের উচ্চতা সবাইকে অবাক করে। সেই উচ্চতা বেশ কিছুটা বেড়ে গেছে। বিশ্বের উচ্চতম পাহাড়ের উচ্চতা নিয়ে সহমত হল নেপাল ও চীন। এই দুই দেশের পক্ষ থেকে মাউন্ট এভারেস্টের নতুন উচ্চতা (Height of Mount Everest) প্রকাশ করা হল। চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ও নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারি যৌথ ঘোষণার মধ্য দিয়ে জানান, মাউন্ট এভারেস্টের উচ্চতা ৮৮৪৮.৮৬ মিটার বা ২৯০৩.৬৯ ফিট। যদিও আগে নেপাল, এই মাউন্ট এভারেস্টের উচ্চতা ৮৮৪৮ মিটার বলে স্বীকৃতি দিয়েছিল। দুই দেশ বিশ্বের দীর্ঘতম শৃঙ্গের উচ্চতা নিয়ে দীর্ঘকালীন বিতর্ক শেষে এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।

China announced revised height of Mount Everest
China announced revised height of Mount Everest

আসলে সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার জরিপ অনুযায়ী এই উচ্চতা জানা গিয়েছিল। এভারেস্ট মানেই এক বঙ্গসন্তান,রাধানাথ শিকদার। এই ‘মানব কম্পিউটার‘ বাঙালি গণিতজ্ঞ ১৮৪৯ সালে এভারেস্টের উচ্চতা প্রায় অভ্রান্ত ভাবে মেপেছিলেন শুধুমাত্র ত্রিকোণমিতির সাহায্যে। কিন্তু এই উচ্চতার সঙ্গে চীন সহমত ছিল না। দুই দেশের সীমান্তে থাকা এই পর্বতের উচ্চতা বেজিংয়ের গবেষকদের হিসেব অনুযায়ী ছিল ৮৮৪৪ মিটার। অবশেষে সেই মতাভেদ অন্য ভাবে থামানো হলো।

[ আরো পড়ুন ] কর্নাটকে ১২০০ কোটি টাকার ২১৫ মিটার উঁচু হনুমান মূর্তি

শি জিনপিং জানান, দুই দেশ যৌথভাবে ঘোষণা করছে যে এভারেস্টের উচ্চতা ৮৮৪৮.৬ মিটার। এটি চীন ও নেপাল বন্ধুত্বের চূড়া। চীনের বর্ডার অ্যান্ড রোড প্রকল্পে দুই দেশ দ্রুত রাস্তা তৈরি করছে। দুই দেশের সম্পর্কে নিয়ে প্রশংসা করেছেন নেপালের রাষ্ট্রপতি।

[ আরো পড়ুন ] জুরাসিক পার্ক গুজরাতে – ৯.৯ কোটি বছর আগের ডিম

প্রথমে ২০১৯ সালের মে মাসে নেপালের সমীক্ষকরা পাহাড়ের ওপর ওঠেন । এর ঠিক এক বছর পর চীনের বিশেষজ্ঞরা পাহাড়ে আসেন উচ্চতা মাপতে। ২০১৫ সালের ভূমিকম্পের পর অনেকে ভাবেন, এভারেস্টের উচ্চতা কমে গিয়েছে। সেই সন্দেহ দূর করতে আবার উচ্চতা মাপার সিদ্ধান্ত নেয় নেপাল। ১৮৪৯ থেকে ১৮৫৫ সালের মধ্যে ভারত দেরাদুন থেকে একটা পর্যবেক্ষণ চালায়। সেই সময় ভারতের বেস ছিল বিহারের সোনাখোদা ঘাঁটি। সেই সময় জানা ছিল না যে হিমালয়ের এই চূড়াটি বিশ্বের সর্বোচ্চ ছিল। গণনার সময়, পিক XV এর গড় গণনা উচ্চতা ৮৮৩৯.৮০ মিটার বের হয়। পরে এর নামকরণ হয় ভারতের প্রাক্তন সমীক্ষক-জেনারেল স্যার জর্জ এভারেস্টের নামে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *