Earthquake in Croatia takes 6 lives

ক্রোয়েশিয়ায় ভূমিকম্প – ব্যাপক ক্ষতির সাথে মৃত ৬ জন

আন্তর্জাতিক

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত অবস্থাতে পড়লো মধ্য ক্রোয়েশিয়ায় (Earthquake in Croatia) । মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভূমিকম্প জোরালো ভাবে একই অঞ্চলে …

নিজস্ব সংবাদাতা: প্রাকৃতিক দুর্যোগে বেসামাল ক্রোয়েশিয়া। একের পর ভূমিকম্পের আঘাত নেমেছে এই দেশে। ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত অবস্থাতে পড়লো মধ্য ক্রোয়েশিয়ায় (Earthquake in Croatia) । মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভূমিকম্প জোরালো ভাবে একই অঞ্চলে আঘাত হেনেছে। মুহূর্তে মধ্যে তাসের ঘরের মতো হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে অগণিত বাড়িঘর। আতঙ্কিত লোকজন রাস্তায় নেমে আসেন। প্রতিবেশী সার্বিয়া,বসনিয়া ও হার্জেগোভিনায়ও কম্পন অনুভূত হয়। ইউরোপের ভূমধ্যসাগরীয় সিসমোলজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, দেশের রাজধানী জাগরেব থেকে ৪৬ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। প্রাথমিক ভাবে জানা যাচ্ছে, এই ভূমিকম্পের ফলে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

Earthquake in Croatia takes 6 lives
Earthquake in Croatia takes 6 lives

এই ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৬.৩। উত্‍‌সস্থল ক্রোয়েশিয়ার রাজধানী জাগরেবের ৪৬ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে। কম্পনের আঘাতে পেট্রিঞ্জা শহর ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। গত সোমবার, এই শহরে ৫.২ তীব্রতার ভূমিকম্প আঘাত হনেছিল। রেড ক্রস জানিয়েছে, ভূমিকম্পের পরে পেট্রিনজায় ‘অত্যন্ত শোচনীয়’ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তারা পেট্রিনজায় ভূমিকম্পে আক্রান্তদের সাহায্যে সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নিয়েছে। এখনো পর্যন্ত এই ভূমিকম্পে ৬ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। কমপক্ষে ২০ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে দু’জনের অবস্থা যথেষ্ট আশঙ্কাজনক।

[ আরো পড়ুন ] নেপালে পার্লামেন্ট ভাঙা হল – প্রকাশ পেলো অন্তর্দ্বন্দ্ব

তবে এই বিপর্যয়ে এখনও অনেকের খোঁজ মিলছে না। ফলে, আরও মৃত্যুর সম্ভাবনা তৈরী হচ্ছে। ধ্বংসস্তূপের ভিতর জীবিত শিশু ও মানুষ আটকে আছে। ভূতত্ত্ববিজ্ঞানী স্টিফেন হিকস জানান, এই শক্তিশালী ভূমিকম্প ব্যাপক ভাবে আঘাত হেনেছে। ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। পেট্রিঞ্জা শহরে উদ্ধারকাজে সেনার সাহায্য চাওয়া হয়েছে। এলাকার ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে দ্রুত গতিতে প্রাণের খোঁজ চলছে। ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী, সেই ক্ষতিগ্রস্থ পেট্রিঞ্জা শহরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। শহরটি এই মুহূর্তে নিরাপদ নয় বলে বলে অনেকেই মনে করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *