Four Foreign Ministers Meet Together in Tokyo or QUAD Meeting

টোকিওতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা – চীনের বিরুদ্ধে ‘কোয়াড’ বৈঠক

আন্তর্জাতিক

২০০৭ সালে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যে ‘কোয়াড’ (QUAD meeting) স্থাপিত হয়। এই চার দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা আজ মঙ্গলবার …

নিজস্ব সংবাদদাতা: এইমুহূর্তে চীন, বিশ্বের অনেক দেশের কাছেই সমস্যার বিষয়। বেজিংয়ের অন্যায় আগ্রাসন কেউই মানতে চাইছে না। ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরে চীনের অবাধ নৌ চলাচল থামাতে চায় অনেক দেশ। ২০০৭ সালে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যে ‘কোয়াড‘ (QUAD meeting) স্থাপিত হয়। এই চার দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা আজ মঙ্গলবার টোকিওতে দু’দিনের বৈঠকে বসছেন। ভারত ও চীনের মধ্যে চলা বিপজ্জনক উত্তেজনার মধ্যেই বৈঠকটি শুরু হয়েছে। এই বৈঠক চলার সময় একই সাথে তিন থেকে চারটি নৌ ও বিমান মহড়ার ঘোষণা করেছে চীন।

Four Foreign Ministers Meet Together in Tokyo or QUAD Meeting
Four Foreign Ministers Meet Together in Tokyo or QUAD Meeting

জানা যাচ্ছে এই কোয়াডের চারটি সদস্য দেশের মধ্যে ২০১৭ সাল থেকে বিভিন্ন পর্যায়ে নিয়মিত বৈঠক হয়। প্রত্যেক দেশ তাদের সমস্যা তুলে ধরে। সমবেত ভাবে একটা সমাধানের পথ তৈরী হয়। কিন্তু চীনকে আটকাতেই যে এই উদ্যোগ, এটা কখনই বলা হয়নি। চারটি দেশের সরকারগুলোর পক্ষ থেকে জনসমক্ষে আনা নথিতে কোথাও চীন শব্দটিও নেই। কিন্তু অনেকেই মনে করছেন, টোকিও বৈঠকে অনেক ধারণা সম্পূর্ণ ভাবে বদলে দিতে পারে। কারণ ভারত তাদের অবস্থান অনেকটা বদলে ফেলেছে।

[ আরও পড়ুন ] যুদ্ধের আবহে আজারবাইজান-আর্মেনিয়া – নিহতের সংখ্যা ৫৯

চীন ২০০৭ সাল থেকে এই চারটি দেশের বৈঠিককে বেশ সন্দেহের চোখে দেখছে। টোকিওর বৈঠক নিয়ে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানাচ্ছে, কোনো একটি দেশকে লক্ষ্য করে কোনো জোট একেবারেই কাম্য নয়। ওই দেশগুলোর উচিৎ নিজেদের মধ্যে বিশ্বাস, বোঝাপড়া বাড়ানোর চেষ্টা করা। সেই ১৯৯৩ সালেই চীন, জোরালো ভাবে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানকে তাদের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসাবে চিহ্নিত করেছে। এখন সেই তালিকায় যুক্ত হয়েছে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *