Iran warship accident during training kills 40

ইরানের আত্মঘাতী হামলায় যুদ্ধজাহাজ ডুবে নিহত ৪০জন

আন্তর্জাতিক

ইরানি নৌবাহিনীর একটি জাহাজ (Iran warship accident) থেকে ভুল করে ক্ষেপনাস্ত্র আরেকটি জাহাজের দিকে নিক্ষেপ করায় ভয়াবহ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

মস্ত বড় ভুল করে ফেললো ইরানি সেনা। এতটা ভুল সচরাচর হয় না। নিজেরাই নিজেদের যুদ্ধজাহাজ ডুবিয়ে দিয়েছে। ইরানি নৌবাহিনীর একটি জাহাজ (Iran warship accident) থেকে ভুল করে ক্ষেপনাস্ত্র আরেকটি জাহাজের দিকে নিক্ষেপ করায় ভয়াবহ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গতকাল ওমান সাগরে মহড়াচলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে। এতে ৪০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আহত হয়েছে আরো অনেকে। ইরানের কেন্দ্রীয় সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে একটি বিবৃতিতে বলা হয় নৌ মহড়ার সময় জস্ক বন্দরে দুর্ঘটনাটি ঘটে যখন ওই জাহাজটি বিধ্বস্ত হয়।

পাক সেনার উপর হামলা – নিহত মেজর-সহ ৭জনআরও জানতে ক্লিক করুন …

ইরানে রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব শুরু:

যদিও এই ঘটনা নিয়ে ইরানে রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। অন্য রিপোর্টে বলা হয়েছে যে কোনারাক জাহাজে জামারান ফ্রিগেট থেকে ভুল করে একটি রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছিল এবং সেই থেকে হতাহতের ঘটনা ঘটে। আহত বেশ কয়েকজন জাহাজের সদস্যকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনাটি এরই মধ্যে তদন্ত করা শুরু হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের সাহায্যে জানা যাচ্ছে, মহড়ার সময় আত্মঘাতী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কয়েকজন মারা গেছেন এবং মৃতদের মধ্যে কনারাক জাহাজের কমান্ডারও রয়েছেন।

করোনা হলেই মার্কিন সেনাবাহিনীতে চাকরি বাতিল – আরও জানতে ক্লিক করুন …

প্রচণ্ড বিস্ফোরণ:

তেহরান থেকে ১ হাজার ২৭০ কিলোমিটার দূরে জাস্ক বন্দরের কাছে মিসাইল ছুঁড়ে লক্ষ্যভেদ করার প্রশিক্ষণ চালাচ্ছিল নৌসেনার একাধিক জাহাজ। বেশ কিছুটা দূরে সমুদ্রের বুকে লক্ষ্যবস্তু বিছিয়ে দিচ্ছিল কনারাক নামের ইরানি নৌ-বাহিনীর একটি রণতরী। কথা ছিল সমুদ্রের বুকে ভাসমান ওই টার্গেটগুলিতে মিসাইল ছুঁড়বে ইরানি নৌবহরের রণতরীগুলি। কিন্তু ভুল করে টার্গেটের বদলে কনারাক জাহাজেই আছড়ে পড়ে একটি মিসাইল। প্রচণ্ড বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় এক নাবিকের। গোটা সেনাবাহিনীতে তৈরী হয়েছে বিপর্যয়ের চাপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *