Iranian Nuclear Missile Capable for Warhead

Iranian Nuclear Missile: ইরান এবার পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র বানাচ্ছে

আন্তর্জাতিক

ইরান পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (Iranian Nuclear Missile) বানাচ্ছে। অভিযোগ করেছে ইউরোপের প্রভাবশালী তিন দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানি

লড়াই জমে উঠেছে। ইরান পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (Iranian Nuclear Missile) বানাচ্ছে। এই বলে অভিযোগ করেছে ইউরোপের প্রভাবশালী তিন দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জার্মানি। ইরানের সঙ্গে এতদিন পর এবার যুক্তরাষ্ট্রের সুরে কথা বলছে তারা। আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের কথা বলে এলেও ইরানের ব্যাপারে হঠাৎই ইউটার্ন নিল ইউরোপ। কূটনৈতিক চাল নিয়ে ভাবতে চাইছে না ইরান। ইরানের সাম্প্রতিক বিক্ষোভ নিয়ে সরব হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

তারা বলেছে, বিক্ষোভ ১০০ বা ২০০ নয়, ইরানি কর্তৃপক্ষ এক হাজারের বেশি মানুষকে হত্যা করে থাকতে পারে। সেই সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যে আরও সেনা পাঠানোর হুমকিও দিয়েছে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। ইরানের সাম্প্রতিক পরমাণু তৎপরতা জাতিসংঘে পাস হওয়া ২২৩১ নম্বর প্রস্তাবের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের কাছে চিঠি হস্তান্তর করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানির রাষ্ট্রদূতরা। ইরান গত এপ্রিল মাসে সাহাব-৩ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে।আসলে পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করাই ২০১৫ সালে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবের লঙ্ঘন।

তবে পরমাণুবাহী ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির অভিযোগ ‘মনগড়া ও ভিত্তিহীন’ বলে নাকচ করে দিয়েছে ইরান। এদিকে ইরানের সাম্প্রতিক বিক্ষোভ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, ইরানি কর্তৃপক্ষ এক হাজারের বেশি বিক্ষোভকারীকে হত্যা করে থাকতে পারে। একইসঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যে আরও সেনা পাঠানোরও হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৫ সালের জুনে ভিয়েনায় স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কার্যক্রম চালিয়ে গেলেও পারমাণু অস্ত্র তৈরি না করার প্রতিশ্রুতি দেয় তেহরান। এদিকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেছেন, ‘পারমাণবিক চুক্তির ন্যূনতম বাধ্যবাধতা পূরণ করতে না পারায় তাদের অক্ষমতা ঢাকতে মিথ্যা অভিযোগ এনে চিঠি দিয়েছে ইউরোপের শক্তিশালী রাষ্ট্রগুলো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *