Israel destroyed Coronavirus test centre of Palestine

ফিলিস্তিনের করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র গুঁড়িয়ে দিল ইসরাইল

আন্তর্জাতিক

পশ্চিমতীরে ফিলিস্তিনের (Palestine) করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত একটি তল্লাশি চৌকি গুড়িয়ে দিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। ভাইরাস সংক্রমণরোধে …

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনা থেকে বাঁচতে গোটা বিশ্ব চেষ্টা করছে। অথচ এরই মধ্যে করোনা হাসপাতাল গুড়িয়ে দেওয়া হলো। পশ্চিমতীরে ফিলিস্তিনের (Palestine) করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত একটি তল্লাশি চৌকি গুড়িয়ে দিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। ভাইরাস সংক্রমণরোধে দখলকৃত পশ্চিমতীরের জেনিন শহরের প্রবেশমুখে ফিলিস্তিনি নিরাপত্তা বাহিনী তল্লাশি চৌকিটি বানিয়েছিল। ফিলিস্তিনে শেষ ২৪ ঘণ্টায় ৪৬৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। সেখানে মারা গেছে ৩ জন।

এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত চিহ্নিত হয়েছে ৮ হাজার ৩৬০ জন। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ৪০ জন। আক্রান্তদের একজনও সুস্থ হয়ে ওঠেননি।

Palestine COVID-19 Update
Palestine COVID-19 Update

দখলকৃত পশ্চিম তীর এলাকার হেবরনে নির্মাণাধীন একটি কেন্দ্র ভেঙে দেয় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। প্রায় তিন মাস আগে কেন্দ্র নির্মাণ শুরু হয়। কাজ প্রায় শেষ হয়ে এসেছে এমন অবস্থায় বুলডোজার দিয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেয়া হয়েছে কেন্দ্রটি। জেনিন শহরের প্রবেশপথে একটি তল্লাশি চৌকি গুঁড়িয়ে দেয় দখলদার ইসরাইলি বাহিনী। চৌকিটি ফিলিস্তিনিদের জন্য করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার হচ্ছিল। ইসরাইলি সেনাদের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনে করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার খবর সামনে এসেছে।

[ আরও পড়ুন ] চীন জীবাণু অস্ত্র তৈরি করছে পাকিস্তানের সঙ্গে

জেনিনসহ কয়েকটি শরণার্থী শিবিরে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীদের গ্রেফতার করে ইসরায়েল। বেশ কিছু জায়গাতে গুলি চালায় ফিলিস্তিনের ভূখণ্ডে। এসময় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় গুলিবিদ্ধ হয় এক ফিলিস্তিনি। দুই ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়ার সময় তল্লাশি চৌকিটি গুড়িয়ে দেওয়া হয়। ভাইরাসের মহামারীর মধ্যেও ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদে নাগরিকদের উপর নির্যাতন, নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল।

[ আরও পড়ুন ] আগ্রাসনী চীনের বিরুদ্ধে শক্তি দেখাল তাইওয়ান

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ অভিযোগ জানাচ্ছে, তাদের জনগণের মাঝে ভাইরাস ছড়িয়ে দিচ্ছে ইসরায়েলি সৈন্যরা। ইসরায়েলি সৈন্যরা ফিলিস্তিনিদের বাড়ি-ঘরে ঢুকে, চৌকি বসিয়ে তল্লাশি করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *