Japan and US sets missile towards China for air defenece as India China relations getting worse

চীনের বিরুদ্ধে মিসাইল বসালো জাপান ও আমেরিকা

আন্তর্জাতিক

চীন সাগরের সামনেই প্যাট্রিয়ট পিএসি থ্রি এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন (Missile towards China) করেছে জাপান। মুখোমুখী থেকে হাতাহাতি, …

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুখোমুখী থেকে হাতাহাতি, সবশেষে প্রাণ কাড়াকাড়ি। উত্তাপ বাড়লো শীতল লাদাখের। ভারত আর চীনের দ্বন্দ্ব নিয়ে গোটা বিশ্ব চিন্তিত। এবার জাপান ও আমেরিকা এর মধ্যে প্রবেশ করলো। ভারত-চীনের সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। দক্ষিণ চীন সাগরে আধিপত্য বাড়ানোকে কেন্দ্র করে জাপানের সঙ্গেও চীনের সংঘাত বেড়েছে। চীন সাগরের সামনেই প্যাট্রিয়ট পিএসি থ্রি এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন (Missile towards China) করেছে জাপান।

২০২০ সালে দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক উত্তপ্ত হয়নি। এবার পারদ চড়িয়ে চীন সীমান্তে ব্যালিস্টিক মিসাইল মোতায়েন করেছে জাপানি সেনাবাহিনী। সামরিক শক্তিতে কেউ কম যায় না। ফলে মাথা নোয়াতে কেউ রাজি নয়। আধুনিক শ্রম অস্ত্রে চীন ও জাপান যথেষ্ট শক্তিশালী। জাপানের প্যাট্রিয়ট PAC-3 এয়ার ডিফেন্স মিসাইলের সরাসরি লক্ষ্য চীনের দিকে।

PAC-3 MSE Missile Specifications
PAC-3 MSE Missile Specifications

জাপান জানিয়েছে, চলতি মাসের মধ্যেই চারটি সেনাঘাঁটিতে PAC-3 MSE মিসাইল বসানো হবে। যেগুলোর রেঞ্জ ১০০ কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্ব পর্যন্ত আঘাত করতে পারে। ফলে লাদাখের সাথে সমুদ্রেও নজর রাখতে হবে ড্রাগন সেনাবাহিনীকে।

[ আরও পড়ুন ] ইরান খুব দ্রুত হাইপারসোনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করবে

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে টোকিওর সঙ্গে বেজিংয়ের চরম বিবাদ শুরু। জাপানের কাছেই মিসাইল সাবমেরিন পাঠিয়েছে বেজিং। এরপর জাপানের এই মিসাইল সক্রিয়তা বলে জানা গেছে। চীন সীমান্তে জাপান সেনার সংখ্যাও বেড়েছে অনেক। শুধু তাই নয়, এয়ার ডিফেন্স অর্থাৎ আকাশপথে নজরদারি বাড়াচ্ছে জাপান সেনাবাহিনী।

[ আরও পড়ুন ] চীনকে ঠেকাতে আমেরিকার ৬০০ কোটি ডলারের তহবিল

একই সাথে মার্কিন নৌসেনার তিনটি বিমানবাহী রণতরী প্রশান্ত মহাসাগর থেকে দক্ষিণ চীন সাগরের দিকে টহলদারি শুরু করেছে। এ নিয়ে বহু আগে থেকে বিবাদ চলে আসছে। তবে আমেরিকাও নাছোড়বান্দা, সুযোগ পেলেই প্রবেশ করছে চিনের জলসীমায়। এই করোনার মরশুমে আমেরিকা যে যুদ্ধ চায় না, সেটা কিন্তু স্পষ্ট । উদাহরণ স্বরূপ: ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারত ও চীনকে শান্তির মাধ্যমে সময়ের মোকাবিলা করবার পরামর্শ দিয়েছেন।

এশিয়া জুড়ে যুদ্ধের যেন প্রেক্ষাপট তৈরী হচ্ছে, এমনটাই মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা । আপোষে যদি না মেটে, তাহলে পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কর হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *