Love Mother Gets 20 Years Imprisonment in China

চীন ‘লাভ মাদার’ কে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিলো, ১১৮ শিশুকে দত্তক নিয়ে জালিয়াতি করেন

আন্তর্জাতিক

২০০৬ সালে শহর উয়ানের বেশ কয়েকটি শিশুকে দত্তক নেন তিনি। এত শিশু দত্তক নেওয়ার কারণ বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ হয়।

নিজের দায়িত্বে প্রায় ১১৮ শিশুকে দত্তক নিয়েছিলেন এক মহিলা। অগণিত শিশুদের প্রতি যত্ন ও ভালোবাসার জন্য অনেকে ডাকতেন ‘লাভ মাদার’ (Love Mother)। ৫৪ বছরের এই ‘লাভ মাদার’-এর নাম লি ইয়ানজিয়া (  Li Yanxia )। চীন দেশের প্রসিদ্ধ এই ‘লাভ মাদার’ কে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন চীনের (China) একটি আদালত। যদিও কারাবাসের সাথে ২`৬৭ মিলিয়ন ইউয়ান জরিমানা দিতে হবে তাঁকে।

Love Mother Gets 20 Years Imprisonment in China
Love Mother Gets 20 Years Imprisonment in China

জানা যাচ্ছে, চাঁদাবাজি, জালিয়াতি ও সামাজিক বিশৃঙ্খলার অভিযোগে গতকাল বুধবার তাঁকে কারাদণ্ড দিয়েছেন চীনের হিবেই প্রবেশের উয়ান আদালত ( Wu’an City People’s Court )। তবে তাঁর ১৫ সহকারীকেও সাজা দিয়েছেন সেই আদালত। প্রেমিক জু কি-কেও একই কারণে সাড়ে ১২ বছরের কারাদণ্ড ও ১ লাখ ৭৫ হাজার ডলার জরিমানা করা হয়েছে। আদালত জানিয়েছে, ‘নিজের গ্যাংয়ের সঙ্গে মিলে তিনি অনৈতিকভাবে বিপুল আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন।’

২০০৬ সালে শহর উয়ানের বেশ কয়েকটি শিশুকে দত্তক নেন তিনি। এত শিশু দত্তক নেওয়ার কারণ বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ হয়। তাঁদের ছেলেকে এক মানব পাচারকারীর কাছে মাত্র ৭ হাজার ইউয়ানের বিনিময়ে বিক্রি করে তাঁর সাবেক স্বামী। তখন থেকেই তিনি অনুভব করেন, অন্য শিশুদেরও সাহায্য করা উচিত। অনেক বাচ্চাকে দত্তক নিয়ে একটি অনাথ আশ্রম খোলেন লি। সেই আশ্রমটির নাম রাখেন ‘লাভ ভিলেজ’ (Love Village)।

২০১৭ সালে ওই অনাথ আশ্রমে শিশুর সংখ্যা দাঁড়ায় ১১৮। ২০১৮ সালে পুলিশ জানতে পারে, লি-র ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ২ কোটি ইউয়ানের বেশি অর্থ জমা আছে। ল্যান্ড রোভারস ও মার্সিডিজ বেঞ্জের মতো গাড়ির মালিক তিনি। পুলিশ তদন্তে জানতে পারে, ২০১১ সাল থেকে সহযোগীদের নিয়ে অনৈতিক কাজ করেন লি। দত্তক নেওয়া শিশুদের ব্যবহার করে নির্মাণ খাতের কোম্পানিগুলোকে হুমকি দিয়ে টাকা কামাতেন তিনি। তাই এবার তাকে যেতে হচ্ছে কারাগারে|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *