JeM Chief Masood Azhar Alive Released Audio Clip

হুমকির অডিয়ো প্রকাশ জীবন্ত মাসুদ আজহারের – JeM Chief Masood Azhar Alive Released Audio Clip

আন্তর্জাতিক

১১মিনিটের অডিও ক্লিপটিতে তিনি বলছেন, ‘আল্লাকে ভয় করো। মসজিদ-মাদ্রাসা ভাঙা থেকে বিরত থাকো ৷

জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন মাসুদ আজাহার| বেশ কয়েকদিন ধরেই তার বাঁচা-মরাকে নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত ছিল সমস্ত আন্তর্জাতিক মিডিয়া ও কূটনৈতিক মহল| কারণ তার উর্বর মগজেই সন্ত্রাসবাদীদের দল সারা বিশ্বব্যাপী হিংসার তান্ডব চালাতে পারে| ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হামলার পর ভারতের আকাশ পথের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর অনুমান করা হয় তার শারীরিক অসুস্থতার কথা| আর এই জল্পনার মধ্যে বেসরকারি এক সংবাদপত্রের সূত্রে একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ হয়েছে যেখানে মাসুদ আজহারের কণ্ঠে শোনা গেছে, ‘আমার মৃত্যু নিয়ে পুরো বিশ্বে চর্চা হলেও আমি বেঁচে আছি৷ ভালো আছি।’

সেখানে আরও জানা গেছে , ১১মিনিটের অডিও ক্লিপটিতে তিনি বলছেন, ‘আল্লাকে ভয় করো। মসজিদ-মাদ্রাসা ভাঙা থেকে বিরত থাকো৷ মনে রাখবে, যখন মুসলমানরা কাফেরদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে নামে তাদের সঙ্গে আল্লাহর আর্শীবাদ থাকে৷ আল্লাহকে ধন্যবাদ। আমার মৃত্যু নিয়ে পুরো বিশ্বে চর্চা হলেও আমি বেঁচে আছি৷ ভালো আছি।’ তবে তিনি যে মারা যাননি তা স্পষ্ট দাবি করে পাকিস্তান সংবাদমাধ্যম। তার পরিবারের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রে জানা গেছে, এখনও বেঁচে আছেন আজহার। এরপর এটাও জানা গেছে, মাসুদ আজহার কিডনি বিকল হওয়ার রোগে ভুগছেন তাই তাকে নিয়মিত হাসপাতালে ডায়ালাইসিস করতে হচ্ছে।

এদিকে, গত ৫ মার্চ মাসুদ আজহারের ভাই আবদুল রউফ ও ছেলে হাম্মাদ আজহারসহ নিষিদ্ধ সশস্ত্র সংগঠনের কমবেশি ৪৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পাকিস্তানের প্রশাসন।
এদিকে জামাত-উদ-দাওয়া ও ফলাহ-ই-ইনসানিয়তের বিরুদ্ধে পাকিস্তানে টানা অভিযান চলছে বলে দাবি পাকিস্তানের সেনাদের। বুধবার তারা দাবি করে বসে, তাদের দেশের মাটিতে জইশের কোনও অস্তিত্বই নেই। আজ তা একেবারেই উড়িয়ে দিলেন জইশ ই মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহার। স্পষ্ট ভাষায় পাকিস্তানি উদারপন্থীদের হুমকিও দিলেন। মাসুদ মনে করছেন, পাক রাজনীতিকরা আজকের ভারতের রাজনীতি বুঝতেই পারছেন না। ভারত কিন্তু পাকিস্তানকে সব দিক থেকে কোণঠাসা করতে চাইছে। এদিকে দু’দেশের মধ্যে অকাম্য যুদ্ধের উত্তেজনা কমাতে রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিয়ো গুতেরেস, ভারত ও পাকিস্তানের আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন। আশা করা যায়, শান্তির বার্তায় উদ্ভাসিত হবে দুই দেশ|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *