Pakistani Flights Could Face Flying Ban from 188 Countries

বিশ্বে ১৮৮ দেশে পাক বিমানের উড়ানে নিষেধাজ্ঞার সম্ভাবনা

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বিমানের উপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা (Flying Ban) জারি করেছিল ইউরোপ ও উইনাইটেড কিংডম।

নিজস্ব সংবাদদাতা: পাকিস্তান প্রায় একই জায়গাতেই আছে। তাকে নিয়ে গোটা বিশ্ব ভাবতে ব্যস্ত। যদিও এই ভাবনা, ইমরানের পক্ষে যথেষ্ট বেদনার। প্রতিবেশী পাকিস্তান পেতে চলেছে একটা মস্ত ঝটকা। পাক বিমান পরিষেবাতে ভুয়ো পাইলট লাইসেন্সের সমস্যা ছিলই। ফলে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বিমানের উপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা (Flying Ban) জারি করেছিল ইউরোপ ও উইনাইটেড কিংডম। আগামীতে ১৮৮ টি দেশ এই পাক বিমান ব্যবহারের নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারে। থমকে যেতে পারে বহু কোটি টাকার বিমান ব্যবসা।

Pakistani Flights Could Face Flying Ban from 188 Countries

আসলে এর জন্য পাকিস্তান এয়ারলাইন্সকে বড় বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হবে। আন্তর্জাতিক উড়ানের ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট মানদণ্ড থাকে। আন্তর্জাতিক অসামরিক বিমান সংস্থা, ICAO সেটিকে নিয়ন্ত্রণ করে। সম্প্রতি পাক মন্ত্রী গুলাম খান জানান, সে দেশেরবেসরকারি বিমান পরিষেবার ১৪১ থেকে ২৬২ জন পাইলট ভুয়ো লাইসেন্স বানিয়েছেন। এরপর ICAO সুরক্ষা বিষয়ে চিন্তা করে পাকিস্তান সিভিল অ্যাসোসিয়েশন অথরিটিকে এই বিষয়টি জানায়। গত ৩রা নভেম্বর, ICAO জানায় পাকিস্তান পাইলটদের জন্য লাইসেন্সিং প্রক্রিয়ার বিষয়ে লাইসেন্স ও প্রশিক্ষণের বিষয়ে অক্ষমতা আছে।

[ আরও পড়ুন ] ট্রাম্পের বিবাহ বিচ্ছেদ আসন্ন ! স্ত্রী মেলানিয়া সময় গুনছেন

খুব সম্প্রতি ICAO-র সঙ্গে সদস্য দেশগুলির ১২তম বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ সুরক্ষা বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশিত হয়। সেখানে পাকিস্তানের বিমান চালকদের লাইসেন্স কেলেঙ্কারির প্রসঙ্গটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। বিমানচালকদের প্রশিক্ষণ ও লাইসেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে PCAA আন্তর্জাতিক মানদণ্ড পূরণে ব্যর্থ। আর সেই কারণেই পাকিস্তানী বিমান এবং তাদের পাইলটদের বিশ্বের ১৮৮ দেশে বিমান পরিষেবায় নিষেধাজ্ঞা জারি করার সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে। পাক সরকার ও অসামরিক বিমান কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে গুরুত্ব না দেওয়াতে সমস্যা বাড়লো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *