Russia-India-China meet between foreign ministers today will focus on bilateral issues specially on COVID-19

আজ গুরুত্বপূর্ণ রাশিয়া-ইন্দো-চীন ভার্চুয়াল বৈঠক

আন্তর্জাতিক

বিশ্বের সকল দেশ উদ্বেগের মধ্যে আছে। আজ ভারত, চীন ও রাশিয়ার (Russia India China meet) বিদেশমন্ত্রী পর্যায়ের ত্রিপাক্ষিক ভিডিয়ও বৈঠক হবে।

নিজস্ব সংবাদদাতা: এক সপ্তাহ পার হলো লাদাখ সীমান্তের সংঘর্ষ। দুই দেশের একাধিক সেনার প্রাণ গেছে। একাধিক বৈঠকেও সমাধানের পথ প্রসস্থ হয় নি। বরং সেনা আর সাঁজোয়া গাড়ির ভিড় জমছে উত্তরের সীমান্তে। ভাইরাস আবহে এই অস্ত্রের বিবাদে, বিশ্বের সকল দেশ উদ্বেগের মধ্যে আছে। আজ ভারত, চীন ও রাশিয়ার (Russia India China meet) বিদেশমন্ত্রী পর্যায়ের ত্রিপাক্ষিক ভিডিয়ও বৈঠক হবে।

[ আরো পড়ুন ] লাদাখ যাচ্ছেন সেনাপ্রধান – কাশ্মীরে মৃত ২ জেহাদি

চীন সতর্ক করে জানিয়েছে, দুই পারমাণবিক শক্তির মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছ। তাই তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সম্ভবনাতেও ভারতের সাথে যুদ্ধে তারা ভীত নয়। গতকালই দু’দেশের সেনা পর্যায়ে আলোচনা হয়েছে । কিন্তু, বিশেষ ফল পাওয়া যায় নি।

Russia-India-China meet between foreign ministers today will focus on bilateral issues specially on COVID-19
Russia-India-China meet between foreign ministers today will focus on bilateral issues specially on COVID-19

ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং চীনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং উই সামনে আসবেন। সেক্ষেত্রে উঠে আসবেই গলওয়ানের বিষয়। তবে সে ব্যাপারে রাশিয়ার বিদেশমন্ত্রী সার্গেই লাভরভ-এর ভুমিকা প্রধান হবে। গালওয়ান উপত্যকায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর চীন, ভারত যুদ্ধক্ষেত্রে সেনা শক্তিবৃদ্ধি করে গুপ্তচর বিমান পাঠিয়েছে।

[ আরো পড়ুন ] সেনা লাদাখে বেইলি ব্রিজ বানাল – অরুণাচলের ৮ বিমানপোত

ঐ ভয়াবহ যুদ্ধে ৫০০ সৈন্য হাতাহাতি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে। কমপক্ষে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হয়। আগামীকাল ২৪শে জুন, বুধবারের ভিকট্রি ডে প্যারেডে যোগ দিতে রাশিয়াতে গেছেন দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি রাশিয়ার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে রাশিয়ার জার্মানিকে হারানোর ৭৫ বছরপূর্তির অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

তবে এই সফরে আন্তর্জাতিক রাজনীতি, প্রতিরক্ষা, ভৌগলিক কৌশলগত আলোচনার প্রেক্ষিতে ভারত চীন সীমান্ত সামনে আসতেই পারে। অনেকদিন ধরেই রাশিয়ার সাথে ভারতের কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ভালো। কিন্তু আমেরিকার সঙ্গে চীনের বিবাদের সম্পর্ক রাশিয়া ও বেজিংকে কাছে এনেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *