prince

পাকিস্তানের পর ভারতে এলেন সৌদির রাজপুত্র – Saudi Crown Prince Visits India After Pak

আন্তর্জাতিক

সৌদি আরবের আটটি প্রধান মিত্র দেশের মধ্যে একটি ভারত। এর আগে ২০১৬ সালে সৌদির রাজধানীতে যান মোদী।

একটু অসময়ের আবর্তে সৌদির রাজপুত্র Mohammed bin Salman এশিয়ার দুই দেশের অতিথি হয়ে পরপর হাজির হলেন| জঙ্গি হামলার পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের আবহাওয়া খুব খারাপ হয়েছে| কিন্তু পূর্বনির্ধারিত সফর সুচীকে পরিবর্তন না করে, তিনি আজ ভারতে এসে পৌঁছলেন| ওয়াসিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যায় নাম জড়ানো থেকে বিতর্কে রয়েছেন সৌদি আরবের যুবরাজ সলমন। মঙ্গলবারও এ নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে আমেরিকাকে। এমন অস্থির ঝড়ঝঞ্ঝার মধ্যেই এশিয়া সফরে বেড়িয়েছেন তিনি।

এমনিতে সৌদির সঙ্গে আমাদের ভারতের সম্পর্ক চিরদিনই ভালো ছিল। গত নভেম্বরে আর্জেন্টিনায় জি-২০-র পার্শ্ব বৈঠকে এই যুবরাজ সলমনের সঙ্গে দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সেখানেই স্থির হয়, দু’দেশের সম্পর্ক অপরিশ্রুত তেল সরবরাহের পরিধীর বাইরে নিয়ে যাওয়া হবে। একাধিক কৌশলগত দিক থেকে, একে অপরের সহযোগী হওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুই দেশ। ভারতীয় প্রশাসনের আশা, শুধু ভারতে বড়ো কোনো লগ্নির কথাই নয়, ভারতের সঙ্গে আগামীতে যৌথ ভাবে নানা ক্ষেত্রে কাজ করার বিষয়েও একমত হবেন সলমন।

Mohammed bin Salman Meets Indian PM & President
Mohammed bin Salman Meets Indian PM & President

ইমরানের পাকিস্তান সফর শেষ করে ভারতে এলেন সৌদি আরবের রাজপুত্র মহম্মদ বিন সলমন। তার এই সফরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হতে চলেছে নিরাপত্তা। আসলে এর আগে পাকিস্তানে গিয়ে শান্তি স্থাপনের জন্য পাকিস্তানের প্রশংসা করেন সলমন। যৌথ বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয় শান্তি স্থাপনের জন্য ইমরান যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা প্রশংসাযোগ্য। পাকিস্তানের মতো ভারতেও সৌদি আরবের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী এবং তালেবর ব্যবসায়ীদের নিয়ে আসার কথা সলমনের।

Saudi Arabia Crown Prince Mohammed bin Salman
Saudi Arabia Crown Prince Mohammed bin Salman in Pak

তিনি মনে করছেন, সঠিক আলোচনা ছাড়া অন্য কোনও ঘোরালো পথে শান্তি স্থাপন হতে পারে না। ওই যৌথ বিবৃতিতে বলা হয় কোনও জঙ্গিকে রাষ্ট্রসঙ্ঘ স্বীকৃত জঙ্গি ঘোষণার বিষয় ঘিরে যেন রাজনীতি না হয়। অথচ, মাত্র কয়েক দিন আগে বর্বরোচিত জঙ্গি হানার পর মাসুদ আজাহারের জন্য এই দাবি করেছে ভারত। আশা করা হচ্ছে সৌদি রাজপুত্রের সঙ্গে বৈঠকের পর নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় কড়া বার্তা দিয়ে বিবৃতি জারি করবে আরব। আর আগামীতে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনার সমস্ত প্রস্তাব খারিজ করেছে ভারত। দিল্লির তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, সন্ত্রাস আর আলোচনা একসঙ্গে চলতে পারে না।

সৌদি আরবের আটটি প্রধান মিত্র দেশের মধ্যে একটি ভারত। এর আগে ২০১৬ সালে সৌদির রাজধানীতে যান মোদী। সৌদি রাজপুত্র ভারত,পাকিস্তান সহ এশিয়ার তিনটি দেশে সফর শুরু করেছেন। ভারত সফর শেষে তাঁর চিন, মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার কথা। ভারতীয় প্রশাসনের আশা, শুধু ভারতে লগ্নির কথাই নয়, ভারতের সঙ্গে যৌথ ভাবে নানা ক্ষেত্রে কাজ করার বিষয়েও সহমত হবেন সলমন। আজকের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের পর জানা যাবে, আগামীর বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা ও সন্ত্রাস দূরীকরণের পদক্ষেপ|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *