US President Donald Trump Asks Drugs from India to Tackle COVID-19

Trump Asks Drugs: হুমকি, ম্যালেরিয়ার ওষুধ দিতেই হবে

আন্তর্জাতিক

ডনের দাদাগিরি (Trump Asks Drugs) করোনাতে অনেকটাই স্থিমিত| মারণ ভাইরাসের দাপটে গোটা আমেরিকা দিশেহারা| প্রতিদিন মৃতের সংখ্যা ১০০০ ছাড়িয়েছে …

ডনের দাদাগিরি (Trump Asks Drugs) করোনাতে অনেকটাই স্থিমিত| মারণ ভাইরাসের দাপটে গোটা আমেরিকা দিশেহারা| প্রতিদিন মৃতের সংখ্যা ১০০০ ছাড়িয়েছে| বিজ্ঞানের আধুনিকতা কোনঠাসা হয়ে গৃহবন্দী| সাহায্যের হাত পাততে হচ্ছে অবজ্ঞার তৃতীয় বিশ্বের কাছে| ভিক্ষায় কমনীয়তা ও নমনীয়তা একেবারেই নেই, বরং প্রকট হয়েছে যুদ্ধের হুমকি| যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করে করোনার চিকিৎসার জন্য কয়েক কোটি হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট চেয়েছিলেন। তিনি অনুরোধ করেন যাতে হাইড্রোঅক্সিক্লোরোকুইনের রফতানির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ জনিত চিকিৎসার জন্য কয়েক দিন হলো যুক্তরাষ্ট্রে এই ওষুধটি ব্যবহার করা হচ্ছে এবং ভালো ফল পাওয়া গিয়েছে।

Hydroxychloroquine
Hydroxychloroquine

ভারতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পর পরই হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে| ওদিকে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা নিউইয়র্ক, নিউজার্সি এলাকায়। আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষই এখন গৃহবন্দি হয়ে রয়েছে।..এই পরিস্থিতিতে বন্ধু নরেন্দ্র মোদীর কথাই মনে পড়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। হোয়াইট হাউস থেকে ট্রাম্প জানান, “আমি বলেছি, আপনি যদি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন, তাহলে খুবই ভালো হবে। যদি তিনি একান্তই এদেশে ওই ওষুধ আসতে না দেন, তাহলেও আমাদের কিছু বলার থাকবে না, তবে তার ফল ভুগতে হতে পারে ভারতকে”। যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে বলে সেদেশে এখন হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের কয়েক কোটি ডোজ মজুত থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র সরকার আরো কয়েক কোটি ডোজ সংগ্রহ করে রাখতে চাইছে।

২৪টি ওষুধ রফতানির নিষেধাজ্ঞা তুললো – আরও জানতে ক্লিক করুন …

এদিকে হাইড্রোঅক্সিক্লোরোকুইনের অর্ডার মার্চ মাসে দিয়েছিল ডনের আমেরিকা। তবে কত পরিমাণে অথবা সরকারি নাকি বেসরকারি সংস্থার তরফে এই অর্ডার করা হয়েছিল, সে সম্পর্কে নিশ্চিত কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। ট্রাম্প বলেছেন, “ভারতে বিপুল পরিমাণে এই ওষুধ তৈরি হয়। সেখানে এই ওষুধের চাহিদাও রয়েছে প্রচুর। যে পরিমাণ ওষুধের বরাত দিয়েছি আমরা, তা সরবরাহ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি ভারতকে। বহু বছর ধরে ভারত বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আমেরিকার সুবিধে নিয়ে এসেছে। তাই এখন যদি ভারত পিছিয়ে যায় আমি অবাকই হব। তবে যাই সিদ্ধান্ত হোক না কেন প্রধানমন্ত্রীকে আমায় তা জানাতে হবে”। চাঁদে, মঙ্গলে বাড়ি বানাতে চলেছে যে দেশ, তাকেই আবার ম্যালেরিয়ার ওষুধ নিতে হুমকি দিতে হচ্ছে ভারতকে|

করোনা পরীক্ষায় ডিজিটাল স্টেথোস্কোপ – আরও জানতে ক্লিক করুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *