Abhinandan Back in India

ভারতের মাটিতে পা রাখলেন উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন – Abhinandan Back in India

আন্তর্জাতিক

গর্বিত ছেলেকে নিতে সকালেই সীমান্তে পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান এবং মা শোভা বর্তমান

ভারতের মাটিতে পা রাখলেন পাকিস্তানের হেফাজতে থাকা উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন। তাঁকে স্বাগত জানালেন এয়ার ভাইস মার্শাল আর জি কে কপূর। শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ পাক সেনাদের একটি কনভয়ে ওয়াঘা সীমান্তে নিয়ে আসা হয় অভিনন্দনকে। সেখানে তাঁর একপ্রস্ত মেডিক্যাল চেকআপ হয়। পাকিস্তান রেঞ্জার্স-এর ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’-এর পরই ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয় অভিনন্দন বর্তমানকে ।

শুক্রবার সকাল থেকেই একটা টানটান উত্তেজনা ছিল ওয়াঘা-অটারী সীমান্তে। অভিনন্দনকে ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে ফেরানো হবে, খবরটা চাউর হতেই ভোর থেকে কয়েকশো মানুষ সেখানে হাজির হন।কিন্তু কখন ফেরানো হবে তা নিয়ে নানা জল্পনা চলছিল। সেই জল্পনার মধ্যেই নানা সূত্র মারফত্ খবর আসতে থাকে, দুপুর ২টো নাগাদভারতের হাতেঅভিনন্দনকে তুলে দেবে পাকিস্তান। অধীর আগ্রহে সকলেই অপেক্ষা করতে থাকেন কখন সেই মাহেন্দ্রক্ষণ হাজির হবে, কখন দেশের মাটিতে পা রাখবেন অভিনন্দন। অবশেষে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ এসে হাজির হয়। ঘড়ির কাঁটায় ভারতীয় সময় তখন সন্ধ্যা ।

দেশের মাটিতে পা রাখার পরই অভিনন্দনকে অমৃতসর এয়ারবেসে নিয়ে যাওয়া হয় প্লানিং অনুসারে । সেখানেও এক প্রস্থ তাঁর মেডিক্যাল চেকআপ হয়। এ দিন সকালে পাকিস্তানে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশন অভিনন্দনের মুক্তির ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কাজকর্মগুলো সেরে ফেলে। এবং সেই কাগজপত্র পাকিস্তানের হাতে তুলে দেয়। তার পরই ইসলামাবাদ থেকে সড়ক পথে লাহৌরে নিয়ে আসা হয় তাঁকে।

অভিনন্দনকে স্বাগত জানাতে বিকেলেই হাজির হন সেনা ও এয়ার ফোর্সের শীর্ষ আধিকারিকরা। গর্বিত ছেলেকে নিতে সকালেই সীমান্তে পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান এবং মা শোভা বর্তমান।অভিনন্দন বর্তমানকে অভিনন্দন জানাতে সকাল থেকে ওয়াঘা-অটারী সীমান্তে হাজির হন কয়েকশো মানুষ। ‘ভারত মাতা কি জয়’, ‘বন্দে মাতরম’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে সীমান্ত এলাকা। সকলেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকেন কখন ফিরবে ঘরের ছেলে!

সূত্রের খবর, উইং কম্যান্ডারের প্রত্যর্পণ এবং নিরাপত্তার বিষেয়টি বিবেচনা করে ওয়াঘা সীমান্তে আজকের জন্য ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’ বাতিল করে বিএসএফ। চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয় সীমান্তে। অভিনন্দনকে ভারতে ফেরত পাঠানো হোক বিশেষ বিমানে—ইসলামাবাদের কাছে এমনইনাকি অনুরোধ জানিয়েছিল দিল্লি। কিন্তু ইসলামাবাদ সেই অনুরোধ নস্যাত্ করে দিয়ে দিল্লিকে জানিয়ে দেয়, ওয়াঘা-অটারী সীমান্ত দিয়েই নিয়ে আসা হবে অভিনন্দনকে। কথা রেখেছে ইসলামাবাদ|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *